Intense Bags

Intense Bags

হাতে কলমে স্ক্রিনপ্রিন্ট প্রশিক্ষণ    

Application/Registration Start: 01-10-2018
Last date of Registration: 07-11-2018
Course Start Date: 12-10-2018
Total Cost: ৪৫০০ টাকা
Course Start Date: 12-10-2018
Course Duration: ১২ ও ১৩ অক্টোবর, ২০১৮ ইং (শুক্র ও শনিবার)
Class Schedule: সকাল ১০.০০ টা থেকে বিকাল ০৫.০০ টা
No. of Classes / Sessions: ২ টা
Total Hour: ১৪ ঘণ্টা
Available Seat: সর্বোচ্চ ১৫ জন
Location / Area: রূম নং # ১২১১, (লিফটের ১১), শাহ আলী প্লাজা, সেকশন # ১০, মিরপুর, ঢাকা - ১২১৬
Who Can Join
  • ছাত্র-ছাত্রী, বেকার তরুণ-তরুণী, গৃহিনী, কর্মজীবি, বুটিক হাউজ কিংবা টি-শার্ট উদ্যোক্তা ইত্যাদি সহ যে কেউ; যারা স্ক্রিন প্রিন্ট শিখতে, জানতে এবং এই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসা / উদ্যোগ শুরু করতে চান তারা সবাই এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।
Admission Instruction
  • রেজিস্ট্রেশনঃ রেজিস্ট্রেশন লিংকে গিয়ে গুগল ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে পাঠিয়ে দিন। বিকাশ ট্রান্সাকশন আইডি ছাড়া কোন ফরম গ্রহণযোগ্য হবে না। আগে রেজিস্ট্রেশন করলে আগে পাবেন ভিত্তিতে আসন বরাদ্দ দেয়া হবে। কোন স্পট রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ নেই। ধন্যবাদ। রেজিস্ট্রেশন লিংকঃ https://goo.gl/qL2KMH বিঃ দ্রঃ - বিকাশ চার্জ প্রদান করতে হবে না। শুধুমাত্র প্রশিক্ষণ ফিস বিকাশ করুন। - স্ন্যাকস ও লাঞ্চ সহ ট্রেনিংয়ের প্রয়োজনীয় সকল ম্যাটেরিয়াল আয়োজক কর্তৃক সরবারহ করা হবে। - কর্মশালা শেষে কোন প্রকার সনদপত্র বা ভাতা প্রদান করা হবে না। - আয়োজক কর্তৃপক্ষ যে কোন প্রকার অসংঙ্গতির জন্যে নির্ধারিত কর্মশালাটি বাতিল করতে পারবে। সেক্ষেত্রে অংশগ্রহণকারীগণকে আগেই জানানো হবে এবং পেমেন্ট রিটার্ন করা হবে।
Certificate / Materials
  • কর্মশালা শেষে কোন প্রকার সনদপত্র বা ভাতা প্রদান করা হবে না।

Course Content

  • দুই দিনের কোর্সে যা শিখবেন
  • স্ক্রিনপ্রিন্ট কি? স্ক্রিনপ্রিন্ট দিয়ে কি কি কাজ করা যায়?
  • স্ক্রিনপ্রিন্ট করতে কি ধরনের জিনিসপত্র প্রয়োজন এবং সেগুলোর দাম কেমন?
  • স্ক্রিনপ্রিন্টের ডিজাইন তৈরী ও আউটপুট নেয়া।
  • ফ্রেম তৈরী।
  • ডিজাইন এক্সপোজ।
  • রং ও অন্যান্য কেমিক্যাল পরিচিতি, কোনটা কোন কাজে কতটুকু দিতে হবে।
  • রং তৈরী (বিভিন্ন কাজের উপযোগী করে রং তৈরী)।
  • প্রিন্ট মেজারমেন্ট নিয়ে আলোচনা।
  • বিভিন্ন ম্যাটেরিয়ালে প্রিন্টিং করা।
  • কিউরিং ও কিউসি।
  • বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের টেকনিক নিয়ে আলোচনা।
  • প্রিন্টিং সেটআপ দিতে / ব্যবসা শুরু করতে করণীয় পদক্ষেপ সমূহ নিয়ে

Main Branch

  • দুই দিনের কোর্সে যা শিখবেন
  • স্ক্রিনপ্রিন্ট কি? স্ক্রিনপ্রিন্ট দিয়ে কি কি কাজ করা যায়?
  • স্ক্রিনপ্রিন্ট করতে কি ধরনের জিনিসপত্র প্রয়োজন এবং সেগুলোর দাম কেমন?
  • স্ক্রিনপ্রিন্টের ডিজাইন তৈরী ও আউটপুট নেয়া।
  • ফ্রেম তৈরী।
  • ডিজাইন এক্সপোজ।
  • রং ও অন্যান্য কেমিক্যাল পরিচিতি, কোনটা কোন কাজে কতটুকু দিতে হবে।
  • রং তৈরী (বিভিন্ন কাজের উপযোগী করে রং তৈরী)।
  • প্রিন্ট মেজারমেন্ট নিয়ে আলোচনা।
  • বিভিন্ন ম্যাটেরিয়ালে প্রিন্টিং করা।
  • কিউরিং ও কিউসি।
  • বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের টেকনিক নিয়ে আলোচনা।
  • প্রিন্টিং সেটআপ দিতে / ব্যবসা শুরু করতে করণীয় পদক্ষেপ সমূহ নিয়ে
Who Can Join
  • ছাত্র-ছাত্রী, বেকার তরুণ-তরুণী, গৃহিনী, কর্মজীবি, বুটিক হাউজ কিংবা টি-শার্ট উদ্যোক্তা ইত্যাদি সহ যে কেউ; যারা স্ক্রিন প্রিন্ট শিখতে, জানতে এবং এই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে ব্যবসা / উদ্যোগ শুরু করতে চান তারা সবাই এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।
Certificate / Materials
  • কর্মশালা শেষে কোন প্রকার সনদপত্র বা ভাতা প্রদান করা হবে না।

Course Fee: ৳ ৪৫০০ টাকা (+0% VAT)

  • Institute Type
  • Private
  • Total Course
  • 1
  • Department
  • 1
  • 01731797388
Why This Course?
  • দুই দিনের ট্রেনিংয়ে কি সব শেখা যাবে? শেখার বিষয়টা আসলে অনেকাংশে নির্ভর করে শিক্ষার্থীর আগ্রহের উপরে। আমরা যদি ধরে নেই স্ক্রিনপ্রিন্টিংয়ের বিষয়ে আপনি খুব আগ্রহী তাহলে বলা যায় - জী হ্যা। দুই দিনের প্রশিক্ষণে আপনি স্ক্রিনপ্রিন্ট শিখতে পারবেন। স্ক্রিনপ্রিন্টিং আসলে তেমন কোন রকেট সায়েন্স নয়। তাছাড়া আমরা কর্মশালাটি এমন ভাবে সাজিয়েছি যেখানে ব্যবহারিক বিষয়গুলোকে সর্বোচ্চ্য প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। ব্যবহারিক চলার সময়ে প্রয়োজনীয় তাত্ত্বিক বিষয়গুলো আলোচনা করা হবে যা আপনার শেখার ও মনে রাখার প্রক্রিয়াকে তরান্বিত করবে। শিখেই কি কাজ শুরু করা যাবে? হ্যাঁ। আপনি মোটামুটি প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে প্রিন্টিংয়ের কাজ শুরু করে দিতে পারবেন। মনযোগ সহকারে যদি প্রশিক্ষণটি করেন তাহলে আপনি কোথাও আটকাবেন না। প্রবাদে আছে : গাইতে গাইতেই গায়েন হয়। তেমনি আপনি প্রিন্ট শুরু করলে, করতে করতেই দক্ষ প্রিন্টার হয়ে উঠবেন। প্রশিক্ষণ শেষ করেই কি ব্যবসা শুরু করা যাবে? এর উত্তর দুই ভাবে দেয়া যায় - হ্যাঁ আবার না। এটা মূলত নির্ভর করবে আপনার উপর। এই কর্মশালায় আমরা আপনাকে প্রিন্ট করার বিষয়ে হাতে কলমে প্রশিক্ষন দেব। প্রিন্টিংয়ের কৌশলগুলো শিখিয়ে দেব। ব্যবসা শুরু করার ধাপগুলো সম্পর্কে ধারনা দেব। প্রিন্টিং বিজনেসের সমস্যা ও সম্ভাবনাগুলো নিয়ে আলোচনা করবো। প্রশিক্ষণ শেষে অর্জিত জ্ঞান ও আপনার স্বদিচ্ছার উপর নির্ভর করবে আপনি ব্যবসা শুরু করবেন কি না ? তবে আমরা আত্মবিশ্বাসের সাথে বলতে পারি - চাইলেই আপনি অবশ্যই সংশ্লিষ্ট ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। শিখে গেলাম, কিছুদিন পরে ভুলে গেলাম তখন? প্রশিক্ষন শেষে আপনি যদি হাত গুটিয়ে বসে থাকেন তাহলে যে কোন বিদ্যাই ভুলতে বাধ্য। প্রিন্টিংয়ে আপনার হাত খুলতে, চমৎকার সব ডিজাইন প্রিন্ট করতে আপনাকে নিয়মিত চর্চা করতে হবে। চর্চার মধ্যে থাকলেই কেবল আপনি একজন দক্ষ স্ক্রি প্রিন্টার হয়ে উঠবেন। একান্তই যদি ভুলে যান তবে আমাদের প্রশিক্ষন কর্মশালা থেকে প্রাপ্ত হ্যান্ডনোটগুলো স্টাডি করুন। সিনিয়র কারো সাথে যোগাযোগ করে আপনার জ্ঞানটা ঝালিয়ে নিন। তারপরেও কোন সহযোগীতা প্রয়োজন হলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন। শেখার পরে বিজনেস শুরু করতে গেলে আপনাদের থেকে সহযোগীতা পাবো কি? জী, অবশ্যই পাবেন। তবে আমাদের কিছু সীমাবদ্ধতা আছে বিধায় এই সহযোগীতাটুকু নিতে হবে ই-মেইলের মাধ্যমে। কোন কিছু জানার থাকলে, আলোচনা করার থাকলে আমাদেরকে ই-মেইল করবেন। আমরা ই-মেইলে কিংবা প্রয়োজনে ফোন করে অথবা ক্ষেত্র বিশেষে সরাসরি মিটিংয়ের মাধ্যমে সহযোগীতা করতে চেষ্টা করবো। ই-মেইল এড্রেস ট্রেনিং শেষে সবাইকে জানিয়ে দেয়া হবে। কাজ করতে গিয়ে কোন সমস্যায় পড়লে সমাধান পাবো কিভাবে? কাজ করতে গেলে সমস্যা হওয়াটাই স্বাভাবিক। সমস্যা না হওয়ার মানে হচ্ছে আপনার প্রগ্রেস হচ্ছে না। তাই সমস্যায় পড়লে বিচলিত না হয়ে বিষয়টাকে গোড়া থেকে বিশ্লেষন করুন। আবার চেষ্টা করুন। দেখবেন সমাধান পেয়ে গেছেন। যদি সেটা নাও সম্ভব হয় তাহলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে আমরা অনলাইন / ওভার ফোন সাপোর্ট দেয়ার চেষ্টা করবো। দুই দিনের প্রশিক্ষণ ফিস ৪৫০০ টাকা ! একটু বেশি নয় কি? না, বেশি না। দেখুন, আপনি এমন একটা স্কিল শিখছেন যা আপনার সারা জীবনের অর্জন। ভেন্যু ভাড়া, ট্রেইনারের সম্মানী, ভলান্টিয়ারদের খরচ, স্নাক্স, লাঞ্চ, হ্যান্ডস আউট, হাতে কলমে চর্চা করতে প্রয়োজনীয় প্রিন্টিংয়ের সরঞ্জামাদি ইত্যাদির ব্যয় হিসাব করলে এই প্রশিক্ষণ ফি কিন্তু খুবই যৌক্তিক। তাছাড়া - আমরা বিকাশ চার্জ নিচ্ছি না। এই ধরনের প্রশিক্ষণ কি ভবিষ্যতে আরো হবে? হতে পারে আবার নাও হতে পারে। সেটা নির্ভর করবে প্রশিক্ষানার্থীদের চাহিদার উপরে। স্ক্রিনপ্রিন্টিং বিশাল একটি সেক্টর। প্রতিনিয়তই এই সেক্টরটি এডভান্স হচ্ছে। নতুন নতুন প্রযুক্তি, মেশিন, রং ইত্যাদি আসছে। সুতরাং সময়ের সাথে তাল মেলাতে সব সময় আপনাকে শেখার ও চর্চার মধ্যেই থাকতে হবে। নয়তো পিছিয়ে পড়তে হবে। তাছাড়া অদূর ভবিষ্যতে ট্রেনিং ফি বাড়ার সম্ভাবনা থাকবে। তাই যারা প্রিন্টিং শিখতে চান তারা আগামীকাল এর অপেক্ষায় না থেকে বর্তমানকে কাজে লাগিয়ে নিজের দক্ষতার উন্নয়নে যথাযথ পদক্ষেপ নিন। প্রিন্টিং করতে বা প্রিন্টিং ব্যবসা করতে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও দিক নির্দেশনা কোথায় পাবো ? যন্ত্রপাতিই বা কোথায় পাবো? পরের প্রশ্নটির উত্তর দিয়ে আগে শুরু করি - যন্ত্রপাতি, ম্যাটেরিয়াল কি লাগবে, কোথায় পাবেন ! ইত্যাদির বিস্তারিত তথ্য আমরা প্রশিক্ষণ কর্মশালার মধ্যেই দিয়ে দেব। ব্যবসা শুরু জন্যে কোন দিক নির্দেশনা বা পরামর্শ প্রয়োজন হলে ওভার ফোন / ই-মেইলের মাধ্যমে তা দেয়ার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা থাকবে। তারপরেও যদি কারো ওয়ান টু ওয়ান ডিসকাশন প্রয়োজন হয় তবে তিনি সেটা আমাদের থেকে পেতে পারেন। আরো অনেক অনেক প্রশ্ন আছে? ইভেন্ট পেইজে প্রশ্ন করতে পারেন। ফোন করতে পারেন প্রদত্ত নাম্বারে। আর যারা প্রশিক্ষণে অংশ নিবেন তাদের জন্যে তো দুটি দিন রয়েছেই। কাজ করবেন,
Resource person
জনাব নুরুল হুদা বাবু

জনাব নুরুল হুদা বাবু

প্রশিক্ষক

  • জনাব নুরুল হুদা বাবু, প্রায় ৯ বছরের বেশি সময় ধরে যুক্ত আছেন স্ক্রিনপ্রিন্টের সঙ্গে। শুরুতে শখের বসে স্ক্রিনপ্রিন্টের কাজ শিখেছিলেন সরকারি একটি প্রতিষ্ঠান থেকে। কিন্তু সেই শেখাটা ছিল প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। তারপর বেশ কয়েকটি স্ক্রিনপ্রিন্ট কারখানার সান্নিধ্যে থেকে নিজেকে ধীরে ধীরে দক্ষ করে গড়ে তুলেছেন। পরবর্তীতে তাঁর কনসালটেন্সি ও গাইডেন্সে শুরু হয়েছে বেশ কয়েকটি কারখানা। বর্তমানে নিজের প্রতিষ্ঠানের জন্যেও নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে সরকারি, বেসকারি অনেক প্রতিষ্ঠানে তিনি নিজে ট্রেইনার হিসেবে সুনামের সাথে কাজ করেছেন। জনাব বাবু, “বারংবার চাকা আবিস্কারের চেয়ে চাকার ব্যবহার শেখা জরুরী” - এই ফিলোসফিতে বিশ্বাস করেন। তাই তিনি দুই দিনের এই প্রশিক্ষণ কর্মশালাটি সাজিয়েছেনও ঠিক সেভাবে। গৎবাঁধা তাত্ত্বিকতা পরিহার করে কিভাবে একজন শিক্ষার্থীকে অল্প সময়ে স্ক্রিনপ্রিন্টের কারিগরি বিষয়গুলো শিখিয়ে দেয়া যায়! সেই বিষয়ে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা থাকবে ট্রেইনারের পক্ষ থকে।

AmarAdmission Support

Need Help?

+8801611202050