Markazun Nahda | AmarAdmission.com
Markazun Nahda

Markazun Nahda

View All 1 Courses

  • Institute Type
  • Private
  • Total Students
  • 1200
  • Total Course
  • 6
  • Total Teachers
  • 40
  • Department
  • 1
  • Markazun Nahda, House - 21/A, Road - 2, Aftabnagar , Dhaka 1212 Dhaka
  • 01521253468
  • markazunnahda@gmail. com

Free Counselling

Institute History

মারকাযুন নাহদা বোনদের জন্য মাদানী নেসাব পদ্ধতিতে পরিচালিত অনলাইন ও অফলাইন ভিত্তিক একটি বহুমুখী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) মারকাযুন নাহদা কী ও কেন? আজকের শিশু আগামীর ভবিষ্যৎ। নারীজাতি হচ্ছে ভবিষ্যৎ গড়ার কারিগর। ইসলাম দীক্ষায় দীক্ষিত নারী জাতি পারে একটি আলোকিত ভবিষ্যৎ উপহার দিতে। তাই একটি প্রজন্ম ও প্রজন্মের কারিগর গড়ার লক্ষ্যে নারী ও শিশুদের মাঝে সঠিক ইসলাম প্রসারের লক্ষ্যে মারকাযুন নাহদার পথচলা। মারকাযুন নাহদা নারী ও শিশুদের জন্য একটি বহুমুখী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ইসলামিক জ্ঞান প্রচারের সাথে সাথে জীবনমুখী কর্মজ্ঞানের প্রসার মারকাযুন নাহদার প্রত্যয়। শিক্ষা ও দীক্ষার লক্ষ্যকে সমুন্নত রেখে সবচেয়ে ফলপ্রসূ ও সহজতর সিলেবাস পাঠদান পদ্ধতি গ্রহণে আমরা বিশ্বাসী। ঢাকার বুকে আফতাবনগরে প্রতিষ্ঠিত আমাদের মারকায তাই একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। মারকাযুন নাহদা ইলমের সেবায় নিয়জিত অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। লক্ষ্য-উদ্দেশ্য শিক্ষা ও জীবনমুখী কর্মজ্ঞানের প্রসার মারকাযুন নাহদার একটি বিশেষ লক্ষ্য। মারকায হয়ে উঠবে নারী ও শিশুদের জন্য শিক্ষা-দীক্ষার একটি প্রাণকেন্দ্র, যেখানে তারা কুরান-সুন্নাহর ইলম অর্জনের পাশাপাশি একবিংশ শতাব্দির প্রয়োজনীয় জ্ঞানসমূহ থেকেও পিছিয়ে থাকবে না। শিক্ষার্থীদের আত্মগঠন ও আত্মোন্নয়নে ভূমিকা রাখা এবং সুষ্ঠ সমাজ বিনির্মানে এগিয়ে চলাও মারকাযুন নাহদার লক্ষ্য। শুধু শিক্ষা-দীক্ষা নয়, মারকাযের একটি সংকল্প হচ্ছে অবহেলিত নারী ও শিশুদের পাশে সহায় হয়ে দাঁড়ানো। কাদের জন্য এ মারকায? সে সমস্ত অভিভাবকগণের জন্য—যারা তাদের মেয়ে শিশু সন্তানকে শৈশব থেকেই দ্বীনি পরিবেশে গড়ে তুলতে চান, দ্বীনি শিক্ষার পাশাপাশি প্রদান করতে চান জাগতিক শিক্ষা। সে সমস্ত অভিভাভকদের জন্য—যারা তাদের সন্তানকে কুরআনের হাফিজা হিসাবে গড়ে তুলতে খুঁজছেন একটি মানসম্মত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান; সে সমস্ত মেয়েদের জন্য—যারা কুরআন মাজীদ শুদ্ধ করে পড়তে পারেন বা হিফজ সম্পন্ন করেছেন, এবার কুরআন-হাদীস বুঝতে চান এবং আত্মস্থ করতে চান দ্বীনের বিভিন্ন বিষয়ে অগাধ জ্ঞান। এখানে তারা ফলপ্রসূ মাদানী নেসাব কারিকুলামে সাত বছর মেয়াদে সম্পন্ন করতে পারছেন আলিমা কোর্স তথা দাওরায়ে হাদীস। দ্বীনের পথে ফিরে আসা বোনদের জন্য—যারা দ্বীনের প্রয়োজনীয় ইলম অর্জনের জন্য নির্ভরযোগ্য মাধ্যম খুঁজছেন। তাদের জন্য রয়েছে তিন বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন ইসলামিক শারীআহ কোর্স। বৈশিষ্ট্যসমূহ শুধুমাত্র মেয়েদের জন্য ও নারী শিক্ষিকা দ্বারা পাঠদান আবাসিক, অনাবাসিক ও ডে-কেয়ার ব্যবস্থা ক্লাসের বাইরে কোনো টিউশন বা কোচিংয়ের জন্য স্বতন্ত্র কোনো ফি নেই। শিক্ষিকার নিবিড় তত্ত্বাবধানে যে কোনো সময় যে কোনো শিক্ষার্থী ক্লাসের পড়া পুনরায় বুঝে নিতে পারে; শিক্ষার্থীদের জন্য বাধ্যতামূলক গ্রুপস্টাডি, যা শিক্ষার্থীর মেধাকে তীক্ষ্ণ করে এবং প্রেজেন্টেশনকে শাণিত করে; শুধু শিক্ষা নয়, দীক্ষা ও তারবিয়াতের পরিবেশ সুনিশ্চিত করা; দ্বীনি শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারোপ, তবে জাগতিক শিক্ষাকে উপেক্ষা নয়; পাঠের পাশাপাশি প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে সুস্থ বিনোদন ও ইসলামী সংস্কৃতি চর্চার ব্যবস্থা; সাহিত্য পাঠ, পাঠপর্যালোচনা, লেখা-লেখি, বক্তৃতা ও বিতর্কের আয়োজন; ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও সামজিক জীবনে আচার-আচারণ, মানবীয় মূল্যবোধ ও অনুভূতির পরিচর্যা; দৃঢ় মনোবল, আত্মমর্যাদা বোধ ও আদর্শ ব্যক্তিত্ব গঠনের পাশাপাশি সেবা ও দাওয়ার মনোভাব সৃষ্টি; মাতৃ ভাষার পাশাপাশি সর্বোচ্চ আরবীর প্রতি গুরুত্বারোপ এবং ইংরেজিতেও ইম্পর্টেন্স প্রদান; শুধু পরীক্ষা নয়, শিক্ষার্থীর আখলাক, যোগ্যতা ও শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়ন আমাদের লক্ষ্য; কুরআন-সুন্নাহর আদর্শকে ধারণ করে দেওবন্দের আদলে ও মাদানী নেসাবের অনুকরণে প্রতিষ্ঠিত মারকায; সামাজিক আচরণে ও জাগতিক জ্ঞানে মারকাযের শিক্ষার্থীরা মোটেই পিছিয়ে থাকবে না ইন শা আল্লাহ; উপযুক্ত শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে কারিগরি শিক্ষার ব্যবস্থা; মারকাযের উস্তাদা, পরিচালক, কমিটি ও উপদেষ্টা পরিষদে রয়েছেন মাদরাসা, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন ক্ষেত্র ও পেশার অভিজ্ঞ ব্যক্তিবর্গ। ফলে কারিকুলাম প্রণয়নে দ্বীন ও দুনিয়া উভয় বিষয়েই আমরা সচেতনতার পরিচয় দিতে সচেষ্ট থেকেছি। বস্তুত দ্বীন সম্পর্কেও সচেতন ব্যক্তি প্রকৃত অর্থে দুনিয়া সম্পর্কে অজ্ঞ থাকতে পারে না; কেননা দুনিয়াতে চলার পথ ও পদ্ধতি আমাদের দ্বীন থেকেই শিখতে হবে। মারকাযের শিক্ষার্থীদেরকে মানসম্মত পরিবেশ প্রদান ও স্বাস্থ্যকর খাবার পরিবেশনে আমরা সংকল্পবদ্ধ। শিক্ষাপরিকল্পনা ও কার্যক্রম (অফলাইন): প্লে/কেজি থেকে চতুর্থ শ্রেণী ১। প্লে/কেজি থেকে চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত মাতৃভাষার প্রতি সর্বোচ্চ গুরত্বারোপ: আমাদের সিলেবাস ও পদ্ধতিতে চতুর্থ শ্রেণী পড়ুয়া শিক্ষার্থী গতানুগতিক ধারার পঞ্চম শ্রেণী পড়ুয়া একটি শিশুর সমপরিমান বাংলা ও ইংরেজি শিখতে পারবে ইন শা আল্লাহ। এ সময়ে পাঠ দান হবে বাংলা মাধ্যমে। শিশুদের জন্য মাতৃভাষা ছাড়া ভিন্ন ভাষাকে বলে সেকেন্ড ল্যাঙ্গুয়েজ। শিশুর শৈশবের পাঠ যদি সেকেন্ড ল্যাঙ্গুয়েজ মিডিয়ামে আরম্ভ হয়, তখন মাতৃভাষা তার আবেদন হারাতে বাধ্য। ২। তৃতীয় শ্রেণীর মধ্যেই একটি শিশুকে কুরআন মাজীদ সহীহ-শুদ্ধ করণের মাধ্যমে হিফজের সম্পূর্ণ উপযোগী করে গড়ে তুলা। পাশাপাশি শিশুদের উপযোগী করে কুরআনের ভাষা শিক্ষা দান; চতুর্থ শ্রেণীতে একজন শিক্ষার্থী নির্বাচিত আয়াত ও সুরা মুখস্থের পাশাপাশি পুরো কুরআন মাজীদ মুখস্থের মতো করে বারংবার পড়বে এবং কুরআন মাজীদের ভাষা শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ শিক্ষাও অব্যাহত রাখবে। ৩। কেজি থেকে তৃতীয় শ্রেণী পর্যন্ত শিশুদেরকে গল্পে গল্পে আকীদাহ, সীরাত, হাদীস শিক্ষাদান। পাশাপাশি আদাব-শিষ্টাচার, মাসআলা ও দুয়া মাসুরা ইত্যাদির অনুশীলন। ৪। কেজি থেকে চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত ইংরেজি, গণিতসহ সাধারণ জ্ঞাণসমূহকেও গুরুত্বের সাথে পাঠদান। ৫। চতুর্থ শ্রেণী পর্যন্ত মারকায একটি সমন্বিত সিলেবাস অনুসরণ করে। চতুর্থ শ্রেণীর পর একজন অভিভাবকের সামনে স্কুল ও মাদ্রাসা-উভয় দরজা খোলা। অর্থাৎ অভিভাবক সন্তানের ট্যালেন্ট ও আগ্রহের উপর ভিত্তি করে স্কুল কিংবা মাদরাসার পরবর্তি ক্লাসে পড়াতে পারেন কোনো ইয়ার-লস ছাড়াই । পঞ্চম শ্রেণী শিক্ষার্থীদের জন্য তাই একটি টার্ণিং পয়েন্ট। ইন শা আল্লাহ,আমাদের শিক্ষার্থীরা সর্বত্র কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখবে ইন শা আল্লাহ। মাদানী নেসাব ১। পঞ্চম শ্রেণী থেকে শুরু মাদানী নেসাবের সিলেবাস। মাদানী নেসাব হচ্ছে মাওলানা আবু তাহের মিসবাহ হাফিজাহুল্লাহ প্রণিত যুগোপযোগী কারিকুলাম, যেখানে একজন শিক্ষার্থী সবচেয়ে সহজতর পদ্ধতিতে আরবি শিখতে পারে এবং কুরআন-হাদীস বুঝতে পারে। মাদানী নেসাবে একজন শিক্ষার্থী সাত বছরে দাওরা হাদীস সম্পন্নের মাধ্যমে আলিমা হয়ে যেতে পারে, এবং প্রথম তিন বছরের মধ্যেই সম্পূর্ণ কুরআন মাজীদ বুঝতে সক্ষম ইন শা আ আল্লাহ। ২। আমাদের কারিকুলামে শিক্ষার্থীরা মাদানী নেসাবে তিন বছর অধ্যায়নের পর ভর্তি হবে হিফজ বিভাগে। ইতিমধ্যে কুরআনের সমস্ত শব্দ ও বাক্য-কাঠামো তার আয়ত্বে থাকায় সে এক বছরের মধ্যেই হিফজ সম্পন্ন করতে পারবে ইন শা আল্লাহ। এতে করে তার সময় বাঁচবে, কুরআন মাজীদ বুঝে বুঝে পড়ার ফলে হিফজের সময় অন্য রকম মজা অনুভব করবে। ৩। হিফজ শেষে শিক্ষার্থীরা মাদানী নেসাবের বাকি চার বছর অধ্যায়ন করে দাওরা সমাপ্ত করবে ইন শা আল্লাহ। ডিপ্লোমা ইন ইসলামিক শারিয়া এসএসসি বা এইচএসসি পড়ূয়া বয়সী শিক্ষার্থীদের জন্য আমাদের আয়োজন তিন বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন ইসলামিক শারীআহ কোর্স। এ সময়ের মধ্যে একজন শিক্ষার্থী কুরআন মাজিদ সহীহ তিলাওয়াত, আরবি ভাষা ও সাহিত্য, কুরআন তরজমা ও তাফসীর, ফিকহ ও উসুলুল ফিকহ, হাদীস ও হাদীস অধ্যায়নের মূলনীতি, মাতৃত্ব ও গার্হস্থ্য অর্থনীতিসহ নানাবিধ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে দীক্ষা লাভ করবে। এই কোর্সটির তিনটি বছর তিনটি লেভেলে বিভক্ত— ফারায়েজ লেভেল ফরযে কেফায়া লেভেল এডভান্স লেভেল হিফজ বিভাগ এ বিভাগে মাদানী নেসাবের তৃতীয় বর্ষ পড়ে একজন শিক্ষার্থী ভর্তি হতে পারে। অবশ্য মাদানী নেসাবে অধ্যায়ন ছাড়াও ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ যে কেউ হিফজ বিভাগে ভর্তি হতে পারে। হিফজের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে জেনারেল ইডুকেশন লাভের সুযোগ। অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষাকার্যক্রম ১। তিন বছর মেয়াদি কুরআন মাজীদ বুঝে পড়ি প্রগ্রাম: আরবী ভাষা ও কুরআন তরজমা ছাড়াও শিক্ষার্থীরা এ সময়ে গুরুত্বপূর্ণ অন্যান্য বিষয়েও ইলম অর্জনের সুযোগ পায়। কুরআন মাজীদ বুঝতে পারার জন্য আরবি ভাষা শিক্ষার বিকল্প নেই। আরবি ভাষা শিক্ষার পাশাপাশি বিশুদ্ধ শিক্ষার জন্য আরবি ব্যকরণ শাস্ত্র নাহু-সরফ অপরিহার্য। আমরা আমাদের সিলেবাসে কুরআন মাজীদ বোঝার ভিত্তি হিসাবে প্রাথমিক পর্যায়ে আরবি ভাষার প্রতি অধিক গুরুত্বারোপ করেছি। আরবী ভাষা শিক্ষার জন্য দেশে সবচেয়ে জনপ্রিয়, সহজতর ও ফলপ্রসূ পদ্ধতি হচ্ছে আবু তাহের মিসবাহ হাফিজাহুল্লাহ প্রণীত মাদানী নেসাব। আমরা মাদানী নেসাব পদ্ধতিকে আমাদের পাঠদান পদ্ধতি হিসাবে গ্রহণ করি। কুরআন মাজীদ বুঝে পড়ি প্রগ্রাম কয়েকটি লেভেলে বিভক্ত। লেভেল-১: (কোর্সের মেয়াদ: ৬ মাস) ১। এসো আরবী শিখি ১ম খন্ড ২। এসো আরবী শিখি ২য় খন্ড ৩। আত-তামরীনুল কিতাবি (১-৮৩ পৃষ্ঠা) প্রথম সেমিস্টারে বই কম হলেও পড়া কিন্তু সবচেয়ে বেশী। বিল্ডিংয়ের ভিত্তি দেখা যায় না, থাকে মাটির নিচে। সে ভিত্তির উপরই কিন্তু দাঁড়িয়ে থাকে উঁচু উঁচু বিল্ডিং! মাদানী নেসাবে এসো আরবি শিখি ও আত তামরীনুল কিতাবি আরবী ভাষার ভিত্তি। মাদানি নেসাবে পড়া ছাড়া যত ভাবেই পড়েন, এ দুই কিতাবের মাহত্ব বোঝা বড় কঠিন।) লেভেল-২ (কোর্সের মেয়াদ: ৬ মাস) ১। এসো আরবী শিখি ৩য় খন্ড ২। আত-তামিরীনুল কিতাবি (৮৪-২৪৯ পৃষ্ঠা) ৩। এসো সরফ শিখি ৪। কাসাসুন নাবিয়্যিন ১ম খন্ড লেভেল-৩ (কোর্সের মেয়াদ: ৬ মাস) ১। এসো কুরআন শিখি ১ম খন্ড ২। এসো নাহব শিখি ৩। কাসাসুন নাবিয়্যীন ২য় খন্ড লেভেল-৪: (কোর্সের মেয়াদ: ৬ মাস) ১। এসো কুরআন শিখি ২য় খন্ড ২। এসো নাহব শিখি ৩। সূরা ফাতিহা ও সূরা বাকারার পূর্ণাঙ্গ তরজমা লেভেল-৫: (কোর্সের মেয়াদ: ১ বছর) ১। সমগ্র কুরআন মাজীদ (সংক্ষিপ্ত তাফসীরসহ) অনুবাদ ২। উলুমুল কুরআন ও তাফসীরের মূলনীতিসমূহ ২। কুরআন মাজীদ দেখে পড়ি প্রগ্রাম: এটি আট মাস মেয়াদি কোর্স এবং দুটি লেভেলে বিভক্ত। লেভেল-১: দুই মাসব্যাপি ৩০ ঘণ্টার কোর্স প্রতি সপ্তাহে ৪টি করে এক ঘন্টার ক্লাস নেওয়া হবে। ক্লাস নেওয়া হবে নুরুদ্দিন হক্কানি রহ. প্রণিত এবং কয়েক শতাব্দি যাবৎ অত্যাধিক জনপ্রিয় ও পঠিত গ্রন্থ কায়েদা ‘আল কায়িদাতুন নুরানিয়্যা’র মাধ্যমে। অতঃপর কুরআন মাজীদ থেকে দৈনন্দিন পঠিত দুয়াসমূহ শিক্ষা দেওয়া হবে ইন শা আল্লাহ। লেভেল-২: ছয় মাসব্যাপি কোর্স। প্রতি সপ্তাহে তিন দিন করে ক্লাস নেওয়া হবে। প্রতিটি ক্লাসের সময়সীমা ১ ঘন্টা। পাঠদান করা হবে হাফেজি কুরআন ও নাজেরা কুরআন উভয়টি থেকেই। যেন শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশে প্রচলিত যে কুরাআন মাজীদ দেখে পড়তে পারেন। ৩। আকীদাহ কোর্স : এ প্রগ্রামে সপ্তাহে একদিন করে ক্লাস হয় এবং এটি ছয় মাস মেয়াদি একটি কোর্স। এ ছাড়াও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ওয়েবিনারি ও সেমিনারের আয়োজোণ কড়া হোয়ে থাকে । পরীক্ষা ও পাঠদান পদ্ধতি করোকালীন দিনগুলোতে সরকারি বিধি-নিষেধ মেনে অনলাইন/অফলাইনে ক্লাস অনুষ্ঠিত হবে। দারস নিবেন শুধুমাত্র নারী উস্তাদাগণ। এক বছরে দুটি সেমিস্টার। একেকটি সেমিস্টারে একেকটি মিডটার্ম পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া ক্লাস সময়ে নিয়মিত সাপ্তাহিক/মাসিক পরীক্ষার ব্যবস্থা তো থাকছেই। ইন শা আল্লাহ। ছুটি প্রকৃত অর্থে তালিবুল ইলমের কোনো ছুটি নেই, ইলম অন্বেষণে কোনো অবকাশ নেই। তবে দুই ঈদে, সেমিস্টার পরীক্ষার পর দশ দিন করে, জুমাবার ও সরকারীভাবে বাধ্যতামূলক ছুটির দিনগুলোতে দারস-ক্লাস বন্ধ থাকবে।

Vission, Mission & Goal

মাদানী নেসাবের নতুন ব্যাচে ভর্তি শুরু হয়েছে৷ ভর্তি চলছে অনলাইন ব্যাচ ও অফলাইন ব্যাচে। . আপনি কি কুরআন মাজীদ ও হাদীস বুঝে বুঝে পড়তে চান? অফলাইনে সুযোগ হয়ে উঠছে না? তবে ভর্তি হয়ে যান অনলাইন ভিত্তিক সাত বছর মেয়াদি আলিমা কোর্স মাদানী নেসাবে। যে কোনো বয়সের যে কেউ ভর্তি হতে পারেন। ভর্তি ফি: ১৫০০/- মাসিক বেতন: ১০০০/- দারসের সময়: বাদ মাগরিব ভর্তির শেষ সময়: ৩০ মে ২০২১ (যারা সম্পূর্ণ ফি দিতে সক্ষম নন, তাদের জন্য স্পন্সরশিপের ব্যবস্থা রয়েছে, ইন শা আল্লাহ।) অনলাইন ব্যাচে ভর্তি হতে পূরণ করুন গুগল ফরমটি- https://forms.gle/cxdf6MwW4wubcfci6 ভর্তি ফি প্রদান করুন বিকাশে- 01862464639 . শুধু অনলাইন নয়, অফলাইনেও চলছে আমাদের শিক্ষাকার্যক্রম, আলহামদু লিল্লাহ। আল্লাহর ফযলে আমরা যোগ্য আলিমা প্রজন্ম গড়ে তুলতে প্রতিষ্ঠা করেছি ঢাকার বুকে আফতাবনগরে একটি মানস্মমত ক্যাম্পাস। আপনার সন্তানকে আলিমা হিসাবে গড়ে তুলতে বেছে নিতে পারেন এ প্রতিষ্ঠানটি। যুগপোযোগী উন্নত কারিকুলাম মাদানী নেসাব পদ্ধতিতেই আমাদের শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে ও হবে ইন শা আল্লাহ। আবাসিক/অনাবাসিক ভর্তির জন্য পূরণ করুন প্রাথমিকভাবে নিম্নোক্ত গুগল ফরমটি- https://forms.gle/ZK5HLW1U51abjP8YA মারকায সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন আমাদের পরিচিতি- https://drive.google.com/.../1TtnmFHMm013Nj8nVO5B.../view... ভিজিট করুন- www.markazunnahda.org

Achievements

Benifies & Facilities

উম্মাহর বৃহত্তর কল্যাণে নারী ও শিশুদের জন্য এক বুক স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলার নাম মারকাযুন নাহদা। ইলমের প্রসারে মারকাযুন নাহদা একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান। দীর্ঘ দিন অনলাইনে শিক্ষা দানের পর ঢাকার বুকে আফতাবনগরে আমরা শুরু করেছি মারকাযুন নাহদার অফলাইন শিক্ষাকার্যক্রম। শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনার জন্য আপাতত আমরা একটি বিল্ডিংয়ে ফ্লোর ভাড়া নিয়েছি। ভাড়া বিল্ডিং নয়, আমাদের লালিত স্বপ্ন মসজিদ ভিত্তিক একটি মারকায প্রতিষ্ঠা, যেখান থেকে শিক্ষাসহ নানামুখী কল্যাণমূলক কার্যক্রম পরিচালিত হবে ইন শা আল্লাহ। আমরা কাজ করছি ইলমকে সার্বজনীন করার লক্ষ্যে। ধনী-গরিব নির্বিশেষে সর্বস্তরের সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তানদের শিক্ষার সুযোগ আছে আমাদের এখানে। সম্ভ্রান্ত পরিবারের সংযোজন এজন্যই যে, অনেক সম্ভ্রান্ত পরিবার তাদের সন্তানকে ভালো প্রতিষ্ঠানে পড়াতে চায় কিন্তু অর্থের অভাবে পারে না। তা ছাড়া একজন শিক্ষার্থীর আচার-ব্যবহার দ্বারা অপর শিক্ষার্থী তো প্রভাবিত হয়েই থাকে৷ তাই মারকাযুন নাহদা শুধু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই নয়, বরং কল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠানও আলহামদু লিল্লাহ। মারকাযুন নাহদার তত্ত্বাবধানে অনলাইনে অনেক সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীরা ইলম অর্জনের সুযোগ পাচ্ছে। তারা অফলাইনেও অবারিত সুযোগ পাবে ইন শা আল্লাহ।। এজন্যই আপনাদের সহযোগিতা প্রয়োজন। আপনার সহায়তায় সুবিধাবঞ্চিত একটি সন্তান পেতে পারে ইলমে দ্বীন অর্জনের সুযোগ, প্রতিষ্ঠা হতে পারে ঢাকার বুকে একটি দ্বীনি মারকায! এই পোস্টের উদ্দেশ্যই হচ্ছে সকলের কাছে দুয়া কামনা করা, পাশাপাশি ১০০জন লাইফ-টাইম মেম্বারের সন্ধান করা, যারা নিয়মিত প্রতি মাসে ১৫০০/--২০০০/- সাদাকাহ করবেন এবং মারকায পরিচালনা ও স্থায়ী ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখবেন ইন শা আল্লাহ। ইতিমধ্যেই আমরা বেশ কয়েকজন লাইফ টাইম মেম্বার পেয়েছি আলহামদু লিল্লাহ। আল্লাহর রহমতে তাদের সহযোগিতার অসীলাতেই তো আমাদের এদ্দূর পথচলা। আলহামদু লিল্লাহ। সুম্মা আলহামদু লিল্লাহ। আমরা চাই আরও বেশ কয়েকজন ফাউন্ডার মেম্বার যারা মারকায প্রতিষ্ঠায় এককালীন ন্যুনতম ৫০,০০০/- সাদাকাহ করবেন ইন শা আল্লাহ। লাইফটাইম ও ফাউন্ডার মেম্বার হতে আগ্রহীগণ পূরণ করুন নিচের গুগল ফরমটি- https://forms.gle/LcGZtXFdN6UC4YXw5 আপনাদের সাদকাহ থেকে খরচ করা হবে- ১. স্থায়ী মসজিদ ভিত্তিক মারকাজ প্রতিষ্ঠায় ২. অসহায় শিক্ষার্থীদের ইলম অর্জনে ৩. উত্তরাঞ্চলের মক্তব-মাদরাসা পরিচালনায় ৪. সাব'আ সানাবিলের উন্মুক্ত ইলমি কনটেন্ট প্রস্তুত করতে -- মারকাযুন নাহদা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন- https://drive.google.com/.../1TtnmFHMm013Nj8nVO5B.../view... অথবা ভিজিট করুন- www.markazunnahda.org ---- সাদাকাহ পাঠাতে- বিকাশ: 01810078280 রকেট: 01810078280-1 নগদ: 01810078280 ব্যাংক একাউন্ট: কারেন্ট একাউন্ট: Markazun Nahda একাউন্ট নাম্বার: 1281100038907 রাউটিং নাম্বার: 3085821 ব্যাংকের নাম: Dutch-Bangla Bank Limited শাখা:Shimrail #Muhsineen_Welfare_Society #Markazun_Nahda #Saba_Sanabil_Institute

Photo Gallery
Video Gallery